Home » তৃতীয় ফিকহ সিমেনার ও আমীরে শরীয়ত

তৃতীয় ফিকহ সিমেনার ও আমীরে শরীয়ত

Advertisements In Feed
Advertisements

তখন ১৯৯০ সাল। সর্ব ভারতীয় ফিক্বহ একাডেমীর তৃতীয় সেমিনার ছিল বেঙ্গালুরুতে। সেমিনারে প্রথমবারের মত অংশ গ্রহন করেছিলেন আমীরে শরীয়ত আল্লামা তৈয়ীবুর রহমান বড়ভূইয়া সাহেব। যান সমস্যায় সেমিনারের প্রথম দুটি অধিবেশন খোয়াতে হয়েছিল তাঁকে। চার দিবসীয় আলোচনাচক্রের তৃতীয় দিনে তিনি পা রাখেন বেঙ্গালুরুতে। একেতো প্রথমবারের মত যোগদান। দ্বিতীয়ত অনেকটা দেরীতে অংশগ্রহণ।

তখন তৃতীয় অধিবেশন চলছিল। কিছুটা সংকোচ মনে সেমিনার হলের দ্বিতীয় সারিতে বসে পড়েন আমীরে শরীয়ত সাহেব। এরপর যা ঘটল তা রীতিমত আশ্চর্যিত করার মত ঘটনা। ফিক্বহ একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক হযরত মওলানা কাযী মুজাহিদুল ইসলাম কাসিমী সাহেবের চোখের পর্দায় ভেসে ওঠল হযরতের নুরানী চেহারা। সঙ্গে সঙ্গে তিনি মঞ্চ থেকে নেমে আসলেন। হযরতকে স্বাগত জানিয়ে তাঁর সাথে আলিঙ্গন সেরে নিয়ে যান স্টেজে। এরপর মঞ্চে উপবিষ্ট বিশিষ্টজনের সাথে পরিচয় করিয়ে দেন। তখন সভাপতির আসনে সমাসীন ছিলেন ভুবন জোড়া খ্যাতিমান আরবী সাহিত্যিক হযরত মওলানা আবুল হাসান আলি নদওয়ী সাহেব।

এরপর যা ঘটল তা সত্যিই ঐতিহাসিক। এটা হযরতের বর্ণাট্য জীবনের এক মাইল ফলক বটে । পূর্ব নির্ধারিত সূচী মুলতুবী রেখে হযরতকে তাঁর কথিকা পাঠের আমন্ত্রণ জানানো হল। কথিকা পাঠে মাইকে আসার আগে একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক মওলানা মুজাহিদুল ইসলাম কাসিমী সাহেব উপস্থিত প্রতিনিধিগণের সামনে হযরতের ব্যক্তিত্বের পরিচয় করিয়ে দেন।

সর্ব ভারতীয় একটা সেমিনার। সভাপতিত্বের আসনে আবুল হাসান আলি নদওয়ী সাহেবের মত বিশ্বজোড়া খ্যাতিমান ব্যক্তিত্ব। এমন একটা সুনির্দিষ্ট আলোচনাচক্রের সূচী মুলতবী হওয়া যেমন তেমন কথা নয়। দেশ-বিদেশের নামকরা ইসলামী গবেষকদের এই সেমিনারের নির্ধারিত সূচী সেদিন আমাদের হযরত আমীরে শরীয়তের জন্য মুলতবী হল। এটা আমাদের জন্য সত্যিই গর্বের বিষয়।

Rashid Qasimi

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top