সফলতা প্রেমীদের বইটি পড়া উচিত

বই হচ্ছে মানব মনের আনন্দ -দুঃখের সহ আরো নানা বিষয়ের খোরাক বটে।বই পড়ে কত যে কিছুর জ্ঞান অর্জন করা যায় তা বলার অপেক্ষা রাখে না।প্রত্যেক ব্যক্তির বই পড়া অভ্যাস থাকা নিঃসন্দেহে ভালো। আমার সাম্প্রতিক সময়ে পড়া “প্রতিপত্তি ও বন্ধুলাভ ” বইয়ের রিভিউ নিচে পাঠকদের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হল: বইয়ের নাম: প্রতিপত্তি ও বন্ধুলাভ লেখক:ডেল কার্ণেগী ধরন:আত্মউন্নয়ন মূলক বই(অনুবাদিত বই) বইটির ভূমিকা মধ্যে উল্লেখিত হয়েছে লেখকের জীবনবৃত্তান্ত এবং বইটি সম্পর্কে সারাংশ। …

বিস্তারিত পড়ুন

প্রাপ্তি স্বীকার

দাদু। ভালোবাসা, শ্রদ্ধা, বিশ্বাস আর ভরসা যে মানুষটাকে করা যায় ; তিনি দাদু। রগড়, অথচ গল্প ; উদ্দীপনায় সাহসিকতার শিক্ষা। শুভ্র, – যেখানে পবিত্রতা। অন্ধকার যেখানে কুসংস্কার! গল্প-ছন্দ যেখানে মাথা না নোয়াবার দীক্ষা। এটা কে শিক্ষিয়েছে? তুমি ছাড়া। তোমার সাথে আমার স্মৃতি খুব বেশি মনে নেই। খুউব ছেলেবেলায় তুমি আমায় ছেড়ে গেছো । অনেকদিনের সেই তোমার মুখটাও ভুলে গেছি প্রায়। আমি যখন সবে স্কুলে যাওয়া শুরু করি তখনি তুমি এই …

বিস্তারিত পড়ুন

করোনার মহামারিতে শিক্ষার্থীদের বাড়িভাড়া নিয়ে সংকটময় দৈনন্দিন জীবন

রাজধানী ঢাকাসহ প্রতিটি জেলা শহরের শিক্ষার্থীদের সিংহভাগই গ্রাম থেকে আসে।আর এই গ্রাম থেকে আসা শিক্ষার্থীদের সংখ্যাগরিষ্ট ভাগ কৃষক পরিবারের সন্তান। এসব শিক্ষার্থীরা সাধারণত বাসায় গিয়ে টিউশন,কোচিং অথবা প্রাইভেট কোন প্রতিষ্ঠানে খণ্ডকালীন চাকরি করে ব্যয়ভার নির্বাহ করে। যেহেতু গত মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষনা দিয়ে,ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়েছে দেশের সরকার।তবে থেকে সরকারের সিদ্ধান্তের সাথে সম্মতি জানিয়ে নিরুপায় হয়ে টিউশন, কোচিং থেকে বিরত থেকে বাড়িতে অবস্থান …

বিস্তারিত পড়ুন

বাদলধারা মনে করে দেয়

দূর গগনে মেঘরাশি জড়ো হয়ে ধরায় প্রকৃতি মাঝে আবির্ভূত হয় কালো মেঘাছন্ন দিন অথবা রজনীতে ছোঁয়াতে। প্রকৃতির রূপ বদলে সাঙ্গ নিয়ে মানবরা হয়ে উঠে ঐ রূপের দর্শক! ধরার সর্বত্রে এক যেন আমেজ চারদিকে শন শন করে পবন বইতে থাকে। পবনে শুষ্কতায় নেমে আসে বাদল ধারা এই সবই প্রকৃতি নিয়মানুবর্তীতা। কখনো বাদল নামে অন্ধকার মেঘাছন্ন আভাস দিয়ে, কখনো মেঘের গুড়ুম গুড়ুম গর্জনে, কখনো বা মেঘের গর্জনে পালা বাড়িয়ে। আকস্মিক বিদ্যুৎ মতো …

বিস্তারিত পড়ুন

তারাপদ রায়ের সেরা তিনটি হাসির গল্প

হাসি মানসিক বৈকল্যতার অন্যতম ঔষধ। সুস্থ থাকতে সুঠাম দেহের পাশাপাশি সুস্থ হাসির প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। তাই আজকের এই সংকলনের প্রয়াস। অবিভক্ত বাংলার অন্যতম শক্তিমান লেখক তারাপদ রায়ের আছে শক্ত এক হাসির গল্প সংকলন। বাস্তবিক অর্থে আমাদের প্রাত্যহিক জীবনের সাথে মিলেমিশে একাকার হয়ে আছে তারাপদ রায়ের হাসির গল্পগুলো। মন খারাপ থাকলে তারাপদ রায়ের কান্ডজ্ঞানহীন, মাতাল সমগ্র, রম্যরচনায় ডুব দিই। তারাপদ রায়ের রম্যরচনা ও মাতাল সমগ্র থেকে পছন্দের তিনটি গল্প এখানে সংকলিত করলাম। …

বিস্তারিত পড়ুন

কেউ কিচ্ছু জানেনা

নিশুতি রাতটা ঘুমিয়ে গেলে শহরেঘুমহীন ওরা দাঁড়িয়ে থাকে দূয়ারে ,অপেক্ষায় আছে কখন নরবে কড়া আর ঘুঁচবে ওদের অনাহারীর খড়া ৷কেউবা বলে বেশ্যা কেউবা পতিতাওরা জানে আমার আসল চরিত্রটা ,জানে আমার দূর্গন্ধময় মনের কথাযা ওরা প্রতিনিয়ত দেয় ধামাচাপা ৷সুই সুতোয় অভিমানকে বন্দী করেবুকচাপা বোবাকান্নাগুলো ঘাম হয়ে ,বারেবারে তোমার ললাট যায় ছুঁয়েতুমি আমি কেউই দেখেনি তাকিয়ে ৷আঁকড়ে ধরি যখন বীর্যস্থলন সুখেতখন জাত যায়না পতিতার স্পর্শে ,অথচ সাধু সাজি দিনের আলোতেভ্রু কুঁচকে দেখি …

বিস্তারিত পড়ুন

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন চাই

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল নয়, সংশোধন দরকার। আমরা যারা আইনজ্ঞ, সাধারণ পিউপিল, পাবলিক ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল চাচ্ছি তাদের মধ্যে ক’জন আইনটি পড়ে কিংবা বাংলাদেশের পরিপেক্ষিত বিবেচনা করেছি তা আমার আন্দাজে ধরে। ২০১৩ সালে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইন প্রণীত হয়েছিলো আবার একই ধাচের সংশোধিত পরিবর্ধিত জিনিস ২০১৮ সালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন। আই আইন করে অব্যহতি দিয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনকে। না না, আইন প্রণয়ন নিয়ে প্রশ্ন তুলছি না। …

বিস্তারিত পড়ুন

সত্য ও সুন্দর

রবীন্দ্রনাথ আইনস্টাইনের সঙ্গে একটা আলাপচারিতায় বলেছিলেন, “সত্য মানুষের মধ্য দিয়েই উপলব্ধ হয়। ব্যক্তিমনের সক্রিয়তা সত্যকে জানার পথ। বিশ্বপ্রকৃতি মানুষ সাপেক্ষ বলেই তা সত্য এবং সুন্দর। এ জগৎ মানুষেরই জগৎ।”যদিও রবীন্দ্রনাথের উক্তি জন কিট্‌সের “সত্যই সুন্দর, সুন্দরই সত্য” উক্তির মতো নয় কিন্তু সেই উক্তিকেই প্রতিষ্ঠিত করে। যেহেতু তাঁর মতে সত্য মানুষ নিরপেক্ষ নয়, সুতরাং “সুন্দরই সত্য” হতে অসুবিধা কোথায়? কিন্তু কিট্‌স নিজেই তার সেই বিখ্যাত উক্তির যৌক্তিক ভিত্তি খুঁজে পাননি। আসলে …

বিস্তারিত পড়ুন

আমরা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের কতিপয় ‘গরিব-মিসকিন’রা

করোনা মহামারিতে সারা পৃথিবী বিপর্যস্ত। নিম্নবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত পেরিয়ে এখন মধ্যবিত্তের জীবনে টানাপোড়ন চলছে। স্বল্প আয়ের মানুষ পরিবারকে গ্রামে পাঠিয়ে দিয়ে ঢাকার বাসা ছেড়ে দিচ্ছেন। কতদিন পারে একমাস, দুইমাস, তিনমাস! ছয়মাসেও তো পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার কোন নিশ্চয়তা নেই। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার পর জীবন, জীবিকা ও আয় স্বাভাবিক করার লড়াই আরও দীর্ঘ হবে কোন সন্দেহ নেই। ১৮ মার্চ থেকে বিশ^বিদ্যালয়গুলো ধীরে ধীরে ছুটি ও হল ভ্যাকেন্ট ঘোষণা করা হয়। ১৪ দিনের …

বিস্তারিত পড়ুন

মানবতার অবক্ষয়

মানবতার অবক্ষয় সভ্যতা আধুনিকতার ছোঁয়ায়, যতই উন্নতি লাভ করছে ততই কত মানুষের মনগুলো পাষাণ হচ্ছে! মানুষেরা ভুলে যাচ্ছে মানবিকতা, মানুষেরা ভুলে যাচ্ছে মনু্ষ্যত্ববোধ, মানুষেরা ভুলে যাচ্ছে পরমতসহিষ্ণুতা, আর যে কত গুণই! আমরা মৌলিকঅধিকারহীন পথশিশুরা বলতেছি, হে মানুষ,আমাদের শুষ্ক চেহারা,বস্ত্রহীন দেহ,পরিপূর্ণতাহীন উদর দেখে একটুও কি মায়া হয় না? আমরা কি সৃষ্টির সেরা মানুষ হিসেবে বিবেচিত নয়? মানুষ এমনই হতে থাকবে, আমি চারপা বিশিষ্ট প্রাণী বলতেছি, হে মানব, আমরা কি তোমাদের নিত্যদিন …

বিস্তারিত পড়ুন

কেমন দল গঠন করতে যাচ্ছে নুরুরা

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা ও ডাকসুর ভিপি নুরুল হক নুরু নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন। যুব, শ্রমিক ও প্রবাসী অধিকার পরিষদসহ মূল দল নিয়ে শিগগিরই আত্মপ্রকাশের কথা জানিয়েছেন তিনি। আগে থেকে কোটা সংস্কার আন্দোলন থেকে তৈরী হওয়া এই তরুণদের ‘ছাত্র অধিকার পরিষদ’ নামে একটি সংগঠন রয়েছে। কিছুদিন আগে জামাত থেকে বহিষ্কৃত ও সাবেক শিবির নেতা মুজিবুর রহমান মঞ্জু  ‘এবি পার্টি’ নামে একটি রাজনৈতিক দলের আত্মপ্রকাশ করেছিলেন। সে সময় সমালোচনা ছিল …

বিস্তারিত পড়ুন

প্রকৃতির নিবিড় চলা

পূর্ব দিগন্তে সূর্যি মামা উঁকিয়ে নতুন প্রভাতে সূচনা হয়। গাছে-গাছে পাখ-পাখালি কূজনে শ্রুতিমধুর হয়ে উঠে ভূবন। ছোট্র ছেলেটি ও কেঁদে ভাঙ্গে নয়নের নিদ্রা। কারো বা নয়নের নিদ্রা জাগে ভোরের পাখ-পাখালি কূজনে, কারো বা জাগে প্রকৃতির নিয়মানুসারে। কেউ বা ছুটে বেড়ায় প্রকৃতির দর্শনে কেউ ছুটে বেড়ায় জীবিকার সন্ধানে। কেউ বা ছুটে বেড়ায় অন্নের সন্ধানে এই যেন প্রকৃতির সাথে তালমিলিয়ে চলা। সূয্যি মামা আলোয় আলোকিত হয় এই অপরূপ সজ্জিত ভূবন। সূ্র্য্যের আলোয় …

বিস্তারিত পড়ুন

বুদ্ধের মুখনিঃসৃত বাণী : ধম্মপদের যুগ্নগাঁথা

ধম্মপদ বুদ্ধ ধর্মের একটি গুরুত্বপূর্ণ বই। হিন্দু ধর্মে গীতা, খ্রীষ্ট্রান ধর্মে বাইবেল এবং ইসলাম ধর্মে কোরান যেমন গুরুত্বপূর্ণ বই হিসেবে নিজ ধর্মের অনুসারীরা মানেন ঠিক তেমনি বুদ্ধ ধর্ম ও দর্শন অনুসারীদের জন্য ধম্মপদ অতীব মূল্যবান। গৌতম বুদ্ধ দুঃখ এবং দুঃখ থেকে মুক্তির পথ বর্ণনা করেছেন, শান্তির বার্তা দিয়েছেন মানবকুলের জন্য। বলা হয়ে থাকে বুদ্ধের মুখনিঃসৃত বাণী হলো ধম্মপদ। পালি সুত্তপিটকের পাঁচটি নিকায় অথবা অংশ; তার পঞ্চমটির নাম খুদ্দক নিকায়। খুদ্দক …

বিস্তারিত পড়ুন

অপেক্ষা ও ইলেক্ট্রলাইট ইমব্যালান্স

(এক) জীবনে কত মানুষের সাথেই না আমাদের পরিচয় হয়। এমন অনেক মানুষের সাথে আমাদের দেখা হয়, কথা হয় খুব অল্প সময়ের জন্য,- হাট-বাজারে, বাস স্টান্ডে, রেলের কামরায়। হয়ত তাদের সাথে জীবনে কখনো আর দেখা হবেই না ! তেমনি, কখনো ভাবিনি এই গল্পটা এতদূর এগুবে। ১১ মে। বৈশাখের শেষ সপ্তাহ। এক সপ্তাহ বিষাদময় গরম শেষে গত দুদিন পাল্লা দিয়েছে কখনো তুমুল বৃষ্টি তো কখনো টিপটিপ বৃষ্টি। আজ সকাল অবশ্য রোদ ঝলমলে। …

বিস্তারিত পড়ুন

প্রকৃতি কিংবা ঈশ্বর

সময় ফুরিয়ে যায়, প্রেমিকার গাঢ় চুম্বনহীন। ছোট্ট শিশুটি কতদিন হাঁটেনা তার পিতার বুড়ো আঙুল ধরে সবুজ ঘাসে। প্রতিটি জলজ্যান্ত মাছ, পাখি, বৃক্ষ এখানে রঙিন হয়ে দৌঁড়োয়। মশা এবং হাতির প্রাণ এক ও অভিন্ন আমরা অহরহ মশাকে হত্যা করেছি, কিন্তু বাঁচাতে চেয়েছি একটি হাতিকে, স্থুলকায় দেহ বুঝি এ তফাৎ সৃষ্টি করে। মানুষ কি এমন ছুটি চেয়েছিলো? বাস্তব প্রকৃতিকে আমরা আদর করে ডাকি ঈশ্বর। ঈশ্বর কখনো চায়নি তার মৃত্যু, তবুও আমরা খুনি …

বিস্তারিত পড়ুন

কানা রাজা ও রহস্যভরা সুড়ঙ্গ : রাজা আমলের অদ্ভুত এক উপখ্যান

রামুতে আলোচিত একটি দর্শনীয় স্থানের নাম “কানা রাজার সুড়ঙ্গ” বা “আঁধার মানিক”। এটি রামুর কাউয়ারখোপ ইউনিয়নের উখিয়ারঘোনা নামক গ্রামে অবস্থিত। এটি একটি গুহা,যার সৃষ্টি প্রাকৃতিকভাবেও হতে পারে, নয়তো কেউ কোন বিশেষ উদ্দেশ্যে এটিকে খননের মাধ্যমে তৈরি করেছিলো কয়েকশত বছর আগে। স্থানীয়ভাবে এই গুহাটি কানা রাজার গুহা নামে পরিচিত। এই গুহার ভেতরের দেয়ালে হাতে আঁকা বুদ্ধের ছবি সহ বৌদ্ধ ধর্মীয় বিভিন্ন ছবি আছে বলে জানা যায়। কিন্তু প্রশ্ন হলো যাঁর নামে …

বিস্তারিত পড়ুন

যে জলে আগুন জ্বলে

নারী নারী তুমি আছো বলেই পেয়েছি মায়ের আদর, স্নেহে পুষ্প চন্দনে, পাঁপড়ি ছোয়া গন্ধে পুলোকিত ঘ্রান। নারী, তুমি আছ বলেই প্রেমের সাথে ভালবাসার প্রলাপন, ভাললাগে অবসর, বৃষ্টির অবিরাম ঝর ঝর, স্মৃতিতে এই যেনো সুখের প্রজ্ঞাপন। নারী, তুমি আছো বলেই পৃথিবী আজ এত বেশী পছন্দ করে প্রসাধন অলংকার আর বেনারসি শাড়িতে বিয়ের আয়োজন। নারী, তুমি আছো বলেই পুরুষ তার পূর্ণতা পেয়েছে এত সুুন্দর, পুষ্পকলির ফুটন্ত যৌবনে নব্য শিশুর বরন নারী, তুমি …

বিস্তারিত পড়ুন

উঁ খিজারী : অবিভক্ত বাংলার অন্যতম শিক্ষানুরাগী ও দানবীর

খিজারীর জীবন খিজারী’র জন্ম রামুর হাইটুপি মৌজায় লাওয়ের পাড়ায়। পিতার নাম ফাপ্রু সওদাগর। যদিও তাঁর মাতার নাম এখনো জানা যায়নি। তাঁর স্ত্রীর নাম ড মি চ্যান ম্রা [Daw Mi Chan Mra]। বড় ছেলে ক্যা যান হ্লা [Khyaw Zan Hla] এবং ছোট ছেলের নাম কিয়াও হটুন [Khyaw Htoon]। ১৯২২ খ্রিস্টাব্দে বড় ছেলের বয়স ছিলো ৩৫ বছর এবং ছোট ছেলের বয়স ১৮ বছর। কিয়াও হটুন তখন সেন্ট জেভিয়ার কলেজের জুনিয়র ক্যামব্রিজের ছাত্র। …

বিস্তারিত পড়ুন

স্রোত

চৈত্র মাস। চারদিকে খা খা করছে। এরই মধ্যে ঢাকা থেকে দলে দলে মানুষ চলে এসেছে গ্রামে। ঢাকায় নাকি ভাইরাসের আক্রমণ হয়েছে। আক্রমণ থেকে বাঁচতে গ্রামমুখি মানুষের ঢল। ক’দিন পর মানুষের পিছ পিছ ভাইরাস গ্রামেও চলে এসেছে। ভাইরাসের ভয়ে গ্রামের মানুষও আর ঘর থেকে বের হয়না। রাকিবের বাবা ভ্যান চালক। রাস্তায় মানুষ নেই রাকিবের বাবার ইনকামও নেই। বাবা এখন বাড়ির উঠানের লাউ আর ঝিঙে গাছের যত্ন নেন সকাল-বিকাল। বড় বোন বানুতার …

বিস্তারিত পড়ুন

সোনালী আাঁশ পাট : যেভাবে অর্থনীতির চাকা সচল করতে পারতো

সুপ্রাচীনকাল থেকেই আমাদের দেশে অর্থকরী ফসল হিসেবে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকি পাটকে। সোনা রংয়ের আঁশে কৃষকদের চোখে ছিল সোনার স্বপ্ন। পাটের ব্যবসা-বাণিজ্য ছিল রমরমা। জীবন ও জীবিকার প্রধান অনুষঙ্গ ছিল পাট কেন্দ্রিক। তাই পাঠ্য পুস্তকে পাটকে সোনালী আঁশ বলা হতো। পাট এবং পাটজাত দ্রব্য রপ্তানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা হতো। ব্রিটিশ আমল এবং তার পরবর্তীতেও বহু বছর পাট-ই ছিল আমাদের প্রধান অর্থকরী ফসল। পাটের ব্যবসায় বহু ব্যবসায়ী বিত্ত …

বিস্তারিত পড়ুন
error: আমার কলম কপিরাইট আইনের প্রতি শ্রদ্ধশীল সুতরাং লেখা কপি করাকে নিরুৎসাহিত করে। লেখার নিচে শেয়ার অপশন থেকে শেয়ার করার জন্য আপনাকে উৎসাহিত করা হচ্ছে।